1. [email protected] : bartlansford68 :
  2. [email protected] : bennettblanch :
  3. [email protected] : BobbyAreme :
  4. [email protected] : JefferyCom :
  5. [email protected] : kristalbigge75 :
  6. [email protected] : kurtharman :
  7. [email protected] : Desh News 24 : Desh News 24
  8. [email protected] : Peterfup :
  9. [email protected] : Samuelangem :
  10. [email protected] : vernelltitus993 :
বকশীগঞ্জে একই পরিবারের ৪ জন দৃষ্টি প্রতিবন্ধী : সরকারী সহায়তা চান পরিবারটি - দেশ প্রতিদিন ২৪
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
ইসলামপুরে অসহায় পরিবারের মাঝে  ডা: খোরশেদুজ্জামান ফাউন্ডেশনের ঢেউটিন বিতরণ শ্রীনগরে মাদক ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় সংঘর্ষ : আহত ৮ মাদারগঞ্জে শ্বাসরোধে নববধু মোর্শেদা হত্যা মামলার আসামী আলামিন গ্রেফতার বকশীগঞ্জে ক্যান্সার পরীক্ষা ক্যাম্প পরিদর্শন রাণীশংকৈলে কাঁচা ধানের ফসলের জমিতে ইঁদুরের আক্রমণ : দিশেহারা কৃষক রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের গুলিতে জেএসএস নেতা সুরেশ খুন মাদারগঞ্জে পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার শ্রীনগরে ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়েতে সড়ক দুর্ঘটনায় ১ জনের মৃত্যু : আহত ১ ধর্মপাশায় টিভি দেখতে গিয়ে ছয় বছরের শিশু যৌন নিপীড়নের শিকার : থানায় মামলা রাণীশংকৈলে গাঁজা ও ইয়াবাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার
ব্রেকিং নিউজ :
ইসলামপুরে অসহায় পরিবারের মাঝে  ডা: খোরশেদুজ্জামান ফাউন্ডেশনের ঢেউটিন বিতরণ শ্রীনগরে মাদক ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় সংঘর্ষ : আহত ৮ মাদারগঞ্জে শ্বাসরোধে নববধু মোর্শেদা হত্যা মামলার আসামী আলামিন গ্রেফতার বকশীগঞ্জে ক্যান্সার পরীক্ষা ক্যাম্প পরিদর্শন রাণীশংকৈলে কাঁচা ধানের ফসলের জমিতে ইঁদুরের আক্রমণ : দিশেহারা কৃষক রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের গুলিতে জেএসএস নেতা সুরেশ খুন মাদারগঞ্জে পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার শ্রীনগরে ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়েতে সড়ক দুর্ঘটনায় ১ জনের মৃত্যু : আহত ১ ধর্মপাশায় টিভি দেখতে গিয়ে ছয় বছরের শিশু যৌন নিপীড়নের শিকার : থানায় মামলা রাণীশংকৈলে গাঁজা ও ইয়াবাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

বকশীগঞ্জে একই পরিবারের ৪ জন দৃষ্টি প্রতিবন্ধী : সরকারী সহায়তা চান পরিবারটি

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ১২ আগস্ট, ২০২১
  • ৯৯ সময় দর্শন

রাশেদুল ইসলাম রনি, বকশীগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি

জামালপুরের বকশিগঞ্জে পাঁচ সন্তানের জননী মোছা: নাছিমা বেগম। স্বামী, চার ছেলে ও এক কন্যা সন্তান নিয়ে বসবাস করেন উপজেলার নিলক্ষিয়া ইউনিয়নের জানকিপুর দাড়িপুড়া গ্রামে। ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে পাঁচ সন্তানের মধ্যে তার চারটি ছেলেই দৃষ্টি প্রতিবন্ধী। শুধু স্বাভাবিক রয়েছে মেয়েটি। জন্মের কয়েক মাসের মধ্যে অন্ধত্ত্ব বরন করা ৪টি ছেলে নিয়ে বিপাকে রয়েছে পরিবারটি। অভাবে তাড়নায় অর্ধাহারে অনাহারে দিন কাটছে তাদের। শত অভাবের পরও উচ্চ মাধ্যমিকে লেখাপড়া করছেন নয়ন ও মোফাজ্জল। প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ছেন আজিম উদ্দিন। বিয়ে দিয়েছেন বড় ছেলে নাজমুলকে। সেই ঘরেও রয়েছে দুইটি সন্তান।

অর্থের অভাবে সুচিকিৎসার সুযোগ হয়নিই দৃষ্টি প্রতিবন্ধী চার ভাই এর। এছাড়া চার ভাই এর ভবিষ্যত নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছে তাদের পিতা মাতা। তাই সরকারের কাছে আর্থিক ও চিকিৎসা সহায়তার দাবি জানান তারা।

ফুল মামুদ দেশ প্রতিদিন ২৪ কে বলেন- আমার কিছু জমি আছে। ওইডে আবাদ করি আর অটো চালায়ে ১০ জনের সংসারের খাওন চালাইতাছি। লকডাউনে অটো চালানি বন্ধ। এহন কোনো বেলা খায়ে থাহি, কোনো বেলা না খায়ে থাহি। হাজার কষ্টের মধ্যেও তিনডে পুলারে পরাইতাছি। কিন্তু আমি মইরে গেলেগা এই পুলাডিরে দেহার আর কেউ নাই। ওরা অথই সাগরের মধ্যে পইরে যাবো গা। তাই সরকারের কাছে অনুরোধ আমার পুলাডিরে যদি কিছু এডা ব্যবস্থা কইরে দে তাইলে আমি মইরেও শান্তি পামু।

নাছিমা বেগম দেশ প্রতিদিন ২৪ কে  বলেন- আমার চারটে পুলাই জন্মের ৫-৭ মাসের মধ্যেই অন্ধ হয়ে যায়। আমার তো অতো টেকা নাই। তাউ আমি কিছু কবিরাজ, ডাক্তার দেখাইছি। আমি চিকিৎসা করবের পাই নেই টাকার অভাবে। সরকারতো কতো টেহাই খরচ করে। যদি আমার চারটে পুলারে একটু চিকিৎসা করতো। এর মধ্যে দুইডে পুলাউ চোখে দেখবের পাইতো। আমার কইলজে ডা ঠান্ডা হইতো।

বড় ছেলে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী নাজমুল হক (২২) দেশ প্রতিদিন ২৪ কে বলেন- চার ভাই এর মধ্যে আমিই একমাত্র বিবাহিত। আমি আমার ছেলে মেয়ের মুখটাউ দেখতে পারতাছি না। আমরা ৪ ভাই এর মধ্যে যদি একটা ভাই দৃষ্টি শক্তি ফিরে পাইতাম। তাহলে আর ৩টা ভাই চলতে পারতাম। চোখের দৃষ্টি শক্তিটা ফিরে পেলে ছেলে মেয়ের মুখটাতো একটু দেখতে পারতাম। অনেকেই ঘৃনা করে আমাদেরকে। আমরা সমাজে অবহেলিত। আমি চায় না আল্লাহ আর কাউকে অন্ধ বানাক।

দ্বিতীয় ছেলে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী নয়ন (২০) দেশ প্রতিদিন ২৪ কে বলেন, আমি বকশিগঞ্জের গাজী আমানুজ্জামান মডার্ন কলেজে মানবিক বিভাগে উচ্চ মাধ্যমিক ২য় বর্ষে অধ্যায়ন করি। এসএসসিতে আমি জিপিএ ৩.৯৪ পেয়েছি। আমি আর মোফাজ্জ্বল যখন এসএসসি পরীক্ষা দেয় তখন আমাদের শ্রুতি লেখক ভাড়া করতে মোট ২৯ হাজার টাকা খরচ হয়। আমরা সাহায্যের জন্যে অনেক জায়গায় গিয়েছি। অনেকেই প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। উনারা কেউ কোনো সাহায্য করেনি। পরে আমার বাবা মা গরু বিক্রি করে আমাদের টাকা দিয়েছে। এখন এইচএসসি পরীক্ষার জন্যও শ্রুতি লেখক প্রয়োজন। কিন্তু‘ আমাদের পক্ষে এখন টাকা জোগাড় করা সম্ভব না। হয়তো অর্থের অভাবে আমরা এইচএসসি পরীক্ষা দিতে পারবো না। সরকার যদি একটু সহায়তা করতো তাহলে আমরা পরীক্ষা দিতে পারবো।

তৃতীয় ছেলে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী মো: মোফাজ্জ্বল হক (১৭) দেশ প্রতিদিন ২৪ কে  বলেন- আমি বকশিগঞ্জের গাজী আমানুজ্জামান মডার্ন কলেজে মানবিক বিভাগে উচ্চ মাধ্যমিক ২য় বর্ষে অধ্যায়ন করি। এসএসসিতে আমি জিপিএ ৪.৩৯ পেয়েছি। আসলে সবার মুখেই শুনি এই পৃথিবীটা নাকি অনেক সুন্দর। আমার এই জীবনে কখনো দেখার সুযোগ হয়নি। কখনো জোসনার আলো বা সূর্যের আলো আর পৃথিবীর নানারকম সৌন্দর্য জীবনে দেখার সুযোগ হয়নিই। যদি আমার চোখটা যদি ফিরে পেতাম। তাহলে আমার বাবা মায়ের মুখসহ পৃথিবীর যে এতো সুন্দর্য সেটা যদি উপভোগ করতে পারতাম। তবেই আমার জীবনটা স্বার্থক হতো।

চতুর্থ ছেলে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী আজিম উদ্দিন (১২) দেশ প্রতিদিন ২৪ কে বলেন- আমি সবে মাত্র ৬ষ্ঠ শ্রেনীতে পড়ি। আমার ইচ্ছা আছে আমি শিক্ষক হবো। আসলে শিক্ষকতা ছাড়া আমাদের আর কোনো চাকরি নেই। তাই আমি বড় হয়ে শিক্ষক হয়ে আমার বাবা মাকে আর কোনো কষ্ট করতে দিবো না।

বকশিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: প্রতাপ কুমার নন্দী দেশ প্রতিদিন ২৪ কে  বলেন- কিছু প্রয়োজনীয় খাবার আছে, যেগুলো না খেলে পুষ্টির অভাবে দৃষ্টি শক্তি হারিয়ে যায়। এছাড়া কিছু জন্মগত রোগ আছে, সেগুলোর কারনেও মানুষ অন্ধত্ব বরন করে থাকে। এসব নিয়ে অনেক প্রচারনা দরকার। আমরা এই চার ভাইকে একজন আই স্পেশালিস্টের কাছে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করবো। জানার চেষ্টা করবো যে- কি কারনে তারা অন্ধত্ত্ব বরন করেছে। সেটা পরবর্তী চিকিৎসার মাধ্যমে আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনা যায় কিনা। এই বিষয়গুলো খুব দ্রুত দেখবো।

দৃষ্টি প্রতিবন্ধী পরিবারটির পাশে দাড়িয়ে সরকারী সহায়তা প্রদানের কথা জানিয়ে বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুন মুন জাহান লিজা দেশ প্রতিদিন ২৪ কে বলেন- একই পরিবারের ৪জন দৃষ্টি প্রতিবন্ধীর মধ্যে নাজমুল ও মোফাজ্জ¦ল প্রতিবন্ধী ভাতা পাচ্ছেন এবং নয়ন ও আজিম উদ্দিন শিক্ষা উপবৃত্তি পাচ্ছেন। তবুও নয়ন ও আজিম উদ্দিনের প্রতিবন্ধী ভাতার জন্য কার্ড প্রদান করা হবে। এছাড়া উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমরা সবসময় তাদের পাশে আছি। সরকারের সুযোগ সুবিধা যেনো তারা পায় এবং সমাজে যেনো তারা পিছিয়ে না থাকে। সে জন্য উপজেলা প্রশাসন সদা তৎপর আছে।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরও খবর

সন্ধান

পঞ্জিকা

September 2021
S S M T W T F
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  
প্রযুক্তি সহায়তায় কোডার রাকিব