রোববার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ৩ পৌষ ১৪২৪, ২৮ রবিউল আওয়াল, ১৪৩৯ | ১১:৩৬ অপরাহ্ন
মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট ২০১৭ ০৪:০১:৪০ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

সীমান্ত পথে আসছে ভারতীয় গরু

কোরবানির ঈদ সামনে রেখে ভারত থেকে সীমান্ত পথে বৈধ ও অবৈধ উভয় পথেই গরু আসছে। ভারতীয় সীমান্তের ৯৬টি পথ দিয়ে গরু আনার ব্যাপারে আগের কঠোর অবস্থান শিথিল করেছে বিএসএফ। চলতি মাসের ২০ দিনেই বিভিন্ন সীমান্ত পথে প্রায় এক লাখ গরু ঢুকেছে। কোরবানির ঈদের আগে গরু আমদানি আরও বাড়বে বলে আশা করছেন সীমান্তের গরু বেপারীরা।

গতবারের চেয়ে এবার ভারত থেকে বেশি গরু আসায় গরুর দাম মানুষের সাধ্যের মধ্যেই থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে দেশি খামারিদের বাড়তি মুনাফা করার বাসনা ভেস্তে যেতে বসেছে।

গরু আমদানিকারকরা বলছেন, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের কয়েকটি জেলার সীমান্ত পথে এক সপ্তাহ ধরে গরু আসার সংখ্যা বাড়ছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমান্ত দিয়ে বেশি গরু আসছে। এ জেলার সীমান্ত পথে গত ১০ দিনে প্রায় পাঁচ হাজার গরু এসেছে। এ ছাড়া গত ১৫ দিনে প্রায় ২০ হাজারের বেশি গরু এসেছে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যশোর, সাতক্ষীরা, চুয়াডাঙ্গা ও নওগাঁ সীমান্ত পথে।

সম্প্রতি বিজিবির এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে বৈধভাবে গরু এসেছে তিন লাখ ৭৪ হাজার ৯৭৫টি। এর মধ্যে জানুয়ারি মাসে ৭৭ হাজার ৪৪১টি, ফেব্রুয়ারি মাসে ৫৯ হাজার ২৭৫টি, মার্চ মাসে ৫০ হাজার ৭০০টি, এপ্রিল মাসে ২৯ হাজার ৩৫৬টি, মে মাসে ৫১ হাজার ২২৬টি এবং জুন মাসে ৯৬ হাজার ৯৭৭টি গরু এসেছে। জুলাই মাসেই গরু এসেছে প্রায় ৪০ হাজার। আর চলতি আগস্ট মাসের দুই সপ্তাহে বৈধ ও অবৈধ পথে প্রায় ৩০ হাজার গরু ঢুকেছে।

মিয়ানমার, নেপাল ও ভুটান থেকেও প্রতিদিন গরু আসছে। নেপাল এবং ভুটানের গরু আসছে ভারত ঘুরে। মিয়ানমারের গরু আসছে কক্সবাজার এবং বান্দরবান সীমান্ত দিয়ে। গরু বেপারীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ভারতীয় ব্যবসায়ীরা সীমান্ত সংলগ্ন গ্রামের বিভিন্ন অংশে গরু জড়ো করছেন। রাতের অন্ধকারে এসব গরু দেশে ঢুকছে। অনুসন্ধানে জানা গেছে, ভারতীয় সীমান্তের ৩১টি করিডোর এলাকায় সেখানকার ব্যবসায়ীরা প্রায় ৫ লাখ ভারতীয় গরু এনে জড়ো করেছেন।

সরেজমিনে রাজনগর, শালবাহান ও ভাউলাগঞ্জ পশুর হাট ঘুরে দেখা গেছে, ভারতীয় গরুতে সয়লাব এসব কোরবানির পশুর হাট। তেঁতুলিয়া, আটোয়ারী ও সদর উপজেলার কমপক্ষে ৯টি পয়েন্ট দিয়ে এসব গরু পঞ্চগড়ে ঢুকছে। স্থানীয় গরু ব্যবসায়ী আশরাফুল ইসলাম বলেন, 'আমরা দেশি গরুর ব্যবসা করি। কিন্তু বাজারে দেশি গরুর পাশাপাশি ভারতীয় গরু কেনাবেচা হচ্ছে। ভারতীয় গরুর জন্য দেশি গরুর দাম কিছুটা কম।'

 

আরো খবর